Primary Group: প্রাথমিক গোষ্ঠী কাকে বলে, সংজ্ঞা, বৈশিষ্ঠ্য ও শিক্ষাগত তাৎপর্য

প্রাথমিক গোষ্ঠী (Primary Group) সমাজের মধ্যে সবচেয়ে ক্ষুদ্রতম গোষ্ঠী। তাই যে গোষ্ঠীর সদস্যদের মধ্যে অন্তরঙ্গতা বেশি বা পারস্পরিক সুসম্পর্ক পরিলক্ষিত হয়, তাকে প্রাথমিক গোষ্ঠী বলে।

মানুষ সমাজবদ্ধ জীব। নিজেদের প্রয়োজনে সমাজের মধ্যে গোষ্ঠীর জন্ম হয়েছে। সমাজে বিভিন্ন প্রকার গোষ্ঠী পরিলক্ষিত হয়। এদের মধ্যে প্রাথমিক গোষ্ঠী বা Prathomik Gosthi সমাজের মধ্যে একটি অন্যতম গোষ্ঠী। অর্থাৎ সামাজিক গোষ্ঠীর মধ্যে প্রাথমিক গোষ্ঠী হল সবথেকে প্রাচীনতম গোষ্ঠী।

প্রাথমিক গোষ্ঠী কাকে বলে (Concept of Primary Group)

সাধারণভাবে যে গোষ্ঠীর সদস্যদের মধ্যে মুখোমুখি এবং প্রত্যক্ষ সম্পর্ক পরিলক্ষিত হয় তাকে প্রাথমিক গোষ্ঠী বলে। এই গোষ্ঠীর সদস্যদের মধ্যে ব্যক্তিগত সুসম্পর্ক পরিলক্ষিত হয়ে থাকে। প্রাথমিক গোষ্ঠীর সদস্যদের মধ্যে ‘আমরা বোধ’ (We feeling) অনুভূত হয়। অর্থাৎ প্রাথমিক গোষ্ঠী ব্যক্তিগত সুসম্পর্ক বা প্রত্যক্ষ সম্পর্কের উপর ভিত্তি করে গঠিত হয়ে থাকে।

বিশিষ্ট সমাজতাত্ত্বিক C. H. Cooley তাঁর ‘Social Organization‘ নামক শীর্ষক গ্রন্থে সর্বপ্রথম 1909 সালে প্রাথমিক গোষ্ঠী সম্পর্কে ধারণা দেন।

প্রাথমিক গোষ্ঠীর উদাহরণ (Example of Primary Group) –

সমাজের মধ্যে প্রাথমিক গোষ্ঠীর অন্যতম উদাহরণ হল – পরিবার (Family)। এছাড়া খেলার দল, সম্প্রদায় প্রভৃতি।

প্রাথমিক গোষ্ঠীর সংজ্ঞা (Definition of Primary Group)

বিভিন্ন সমাজতাত্ত্বিক বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে প্রাথমিক গোষ্ঠীকে আখ্যায়িত করেছেন। এখানে প্রাথমিক গোষ্ঠীর সংজ্ঞা প্রসঙ্গে সমাজবিদদের দেওয়া উল্লেখযোগ্য সংজ্ঞাগুলি উল্লেখ করা হল –

বিশিষ্ট সমাজবিদ্‌ Cooley বলেছেন – প্রাথমিক গোষ্ঠী বলতে আমি বুঝি, মুখোমুখি ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ও সহযোগিতার দ্বারা চিহ্নিত বৈশিষ্ট্যাবলীর সমন্বয়ন। (“By primary groups I mean those characterized by intimate face-to-face association and cooperation.”)

আবার, সমাজতাত্ত্বিক ম্যাকাইভার (Maclver) বলেছেন – “Primary groups are the nursery of human nature.”  অর্থাৎ প্রাথমিক গোষ্ঠীগুলো মানব প্রকৃতির নার্সারি।

আরোও পোস্ট পড়ুন – Click Here Now

প্রাথমিক গোষ্ঠীর বৈশিষ্ট্য (Characteristics of Primary Group)

প্রাথমিক গোষ্ঠীকে বিশ্লেষণ করলে এর কতকগুলি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য পরিলক্ষিত হয়। সেগুলি নিম্নলিখিত –

1. দৈহিক নৈকট্য

প্রাথমিক গোষ্ঠীর সদস্যদের মধ্যে দৈহিক নৈকট্য বা মুখোমুখি সম্পর্ক স্থাপিত হয়। অর্থাৎ প্রাথমিক গোষ্ঠী সদস্যদের মধ্যে দৈহিক নৈকট্য একটি আবশ্যিক বিষয় এবং এই সম্পর্ক দীর্ঘস্থায়ী প্রকৃতির।

2. ক্ষুদ্র আয়তন

প্রাথমিক গোষ্ঠী আয়তনে ক্ষুদ্র প্রকৃতির। অর্থাৎ এই গোষ্ঠীর খুবই কম সংখ্যক সদস্যদের পারস্পরিক সম্পর্কের মাধ্যমে গঠিত হয়।

3. ব্যক্তিগত সম্পর্ক

প্রাথমিক গোষ্ঠীর প্রত্যেক সদস্যদের মধ্যে ব্যক্তিগত সুসম্পর্ক বা পারস্পরিক বন্ধন স্থাপিত হয়। ফলে এই গোষ্ঠীর বন্ধন অনেকটা সুদৃঢ় প্রকৃতির। অর্থাৎ বাবা-মা, ছেলে মেয়ে, নাতি নাতনি প্রভৃতি সদস্যদের মধ্যে পারস্পরিক সুসম্পর্কের মাধ্যমে ব্যক্তিগত সম্পর্ক স্থাপিত হয়।

4. স্থায়িত্ব

প্রাথমিক গোষ্ঠীর স্থায়িত্ব দীর্ঘস্থায়ী প্রকৃতির। অর্থাৎ প্রাথমিক গোষ্ঠী বংশগত ভাবে গঠিত হয় এবং এই গোষ্ঠীর সদস্যদের সংখ্যা কম হয়। ফলে গোষ্ঠীর স্থায়িত্ব অনেক বেশি।

5. সদস্যপদ

প্রাথমিক গোষ্ঠীর সদস্যরা পারস্পরিক সুসম্পর্কের ভিত্তিতে গঠিত হয়। অর্থাৎ এখানে সদস্যপদ অনৈচ্ছিক প্রকৃতির। এই গোষ্ঠীর সদস্যদের মনোভাবের দিক থেকে অভিন্ন প্রকৃতির হয়ে থাকে।

প্রাথমিক গোষ্ঠীর শিক্ষাগত তাৎপর্য (Educational Significance of Primary Group)

সামাজিক গোষ্ঠীগুলির মধ্যে প্রাথমিক গোষ্ঠী একটি অন্যতম গোষ্ঠী। শিশুর জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত প্রাথমিক গোষ্ঠী হিসেবে পরিবারতাকে লালন-পালন করে থাকে। তাই প্রাথমিক গোষ্ঠীর শিক্ষাগত তাৎপর্য বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ।

যে সমস্ত দিক থেকে প্রাথমিক গোষ্ঠীর শিক্ষাগত তাৎপর্য বিশেষভাবে পরিলক্ষিত হয়, সেগুলি হল নিম্নলিখিত –

  • প্রাথমিক গোষ্ঠী শিশুকে লালন-পালন করে থাকে।
  • প্রাথমিক গোষ্ঠী শিশুর প্রাথমিক চাহিদাগুলি পরিপূরণ করতে বিশেষভাবে সাহায্য করে।
  • প্রাথমিক গোষ্ঠী শিশুর সামাজিকীকরণে বিশেষভাবে সাহায্য করে। ফলে শিশু সমাজের উপযুক্ত হয়ে গড়ে উঠতে পারে।
  • শিশুর মধ্যে সু অভ্যাস গঠনের ক্ষেত্রে প্রাথমিক গোষ্ঠীর সদস্যদের বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পরিলক্ষিত হয়।
  • শিশুর মানসিক বিকাশ গঠনের ক্ষেত্রে প্রাথমিক গোষ্ঠী বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
  • শিশুর ভাষা বিকাশের ক্ষেত্রে প্রাথমিক গোষ্ঠীর ভূমিকা অনবদ্য। এদিক থেকে প্রাথমিক গোষ্ঠীর শিক্ষাগত তাৎপর্য রয়েছে।
  • শিশু নৈতিক ও মূল্যবোধের বিকাশ সাধনের ক্ষেত্রে প্রাথমিক গোষ্ঠী বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
  • শিশুর বৃত্তি শিক্ষার মাধ্যমে ভবিষ্যৎ উপযোগী করে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে প্রাথমিক গোষ্ঠী বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

তথ্যসূত্র (References)

  • Brown, F. J (1954). Educational Sociology. New York : Prentice-Hall.

প্রশ্ন – প্রাথমিক গোষ্ঠীর ধারণা কি?

উত্তর – যে গোষ্ঠীর সদস্যদের মধ্যে অন্তরঙ্গতা ও পারস্পরিক সুসম্পর্ক এবং গোষ্ঠীর আয়তন ক্ষুদ্র প্রকৃতির হয় তাকে প্রাথমিক গোষ্ঠী বলে। প্রাথমিক গোষ্ঠীর মধ্যে অন্যতম হল পরিবার।

প্রশ্ন – প্রাথমিক গোষ্ঠীর দুটি উদাহরণ দাও।

উত্তর – প্রাথমিক গোষ্ঠীর অন্যতম উদাহরণ হল – পরিবার (Family) ও খেলার দল।

প্রশ্ন – গৌণ গোষ্ঠীর দুটি উদাহরণ দাও

উত্তর – গৌণ গোষ্ঠীর দুটি উদাহরণ হল – শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও ক্রেতা-বিক্রেতা।

প্রশ্ন – প্রাথমিক গোষ্ঠীর কাজ কি?

উত্তর – প্রাথমিক গোষ্ঠীর কাজ হল – শিশুকে সামাজিকীকরণের সাহায্য করা, ব্যক্তিত্বের বিকাশ সাধন, মূল্যবোধের বিকাশ সাধন, গোষ্ঠীর সদস্যদের মধ্যে পারস্পরিক সুসম্পর্ক স্থাপন প্রভৃতি।

প্রশ্ন – সমাজে সুষম জীবন ও সুশৃঙ্খলতা বজায় রাখতে কোন ধরনের গোষ্ঠী বেশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে?

উত্তর – সমাজের সুষম জীবন ও সুশৃংখলতা বজায় রাখার ক্ষেত্রে প্রাথমিক গোষ্ঠী সবথেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কারণ প্রাথমিক গোষ্ঠীগুলি আকারে ক্ষুদ্র প্রকৃতির ও প্রাথমিক গোষ্ঠীর সদস্যদের মধ্যে পারস্পরিক অন্তরঙ্গতা পরিলক্ষিত হয়। পরিবার হল প্রাথমিক গোষ্ঠীর উদাহরণ।

প্রশ্ন – প্রাথমিক গোষ্ঠীর শিক্ষাগত তাৎপর্য আলোচনা করো।

উত্তর – প্রাথমিক গোষ্ঠীর যে সমস্ত শিক্ষাগত তাৎপর্য পরিলক্ষিত হয় সেগুলি হল –
১. শিশুর মধ্যে সু অভ্যাস গঠনের ক্ষেত্রে প্রাথমিক গোষ্ঠীর সদস্যদের বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পরিলক্ষিত হয়।
২. শিশুর মানসিক বিকাশ গঠনের ক্ষেত্রে প্রাথমিক গোষ্ঠী বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
৩. শিশুর ভাষা বিকাশের ক্ষেত্রে প্রাথমিক গোষ্ঠীর ভূমিকা অনবদ্য। এদিক থেকে প্রাথমিক গোষ্ঠীর শিক্ষাগত তাৎপর্য রয়েছে।

আরোও পড়ুন

1 thought on “Primary Group: প্রাথমিক গোষ্ঠী কাকে বলে, সংজ্ঞা, বৈশিষ্ঠ্য ও শিক্ষাগত তাৎপর্য”

Leave a Comment

close